496 বার ভিউ
"স্বাস্থ্য টিপস" বিভাগে করেছেন

অ্যালোভেরার বিস্ময়কর উপকারিতা কী ? অ্যালোভেরা ব্যবহারের নিয়ম জানতে চাই ?

অ্যালোভেরার বিস্ময়কর উপকারিতা

1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন

অ্যালোভেরার বিস্ময়কর উপকারিতা :

অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী একটি ভেষজ উদ্ভিদ, যার উপকারিতা বলে শেষ করার মতো নয়। যদিও এটি আরব উপমহাদেশের বালুচরের উদ্ভিদ, কিন্তু এটি মাটিতেও ফলানো সম্ভব। এর গুণাগুণের কারণে বর্তমানে পৃথিবীর সবস্থানেই এর চাষ বৃদ্ধি পাচ্ছে।

প্রাচীনকাল থেকেই রূপচর্চার কাজে অ্যালোভেরার ব্যবহার হয়ে আসছে। রোদে পোড়া ত্বকের জন্য বিশেষভাবে উপকারী অ্যালোভেরার নির্যাস। ত্বকের ওপরে এর নির্যাস লাগিয়ে রোদে গেলে সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মির কাছ থেকে অনেকাংশেই নিজের ত্বকের রক্ষা করা যায়।

তা ছাড়া নিয়মিতভাবে এর ব্যবহার আপনার নির্জীব ত্বকের খেয়াল রেখে মসৃণ করে তুলবে। ত্বকের বিভিন্ন রকম জীবাণুসংক্রান্ত সংক্রমণ ও ক্ষতস্থানের ক্ষতি সারিয়ে তোলার জন্যও এর জুড়ি মেলা ভার। দাঁত ও দাঁতের মাড়ির সমস্যার জন্যও অ্যালোভেরা সমান গুরুত্বপূর্ণ।

দাঁতের ফাঁকে ব্যাকটেরিয়া দমনে অনেক সময় টুথপেস্টের থেকেও কার্যকার এই অ্যালোভেরা। তা ছাড়া দাঁতে শিরশির অনুভব কিংবা দাঁতে ব্যথার ওষুধ হিসেবে অ্যালোভেরার ব্যবহার করা হয়। নিয়মিতভাবে অ্যালোভেরার জুস পান করে পেটের অসুখ ও কোষ্ঠকাঠিন্যের মতো জটিল অসুখগুলো নিমিষেই দূর করা সম্ভব।

তা ছাড়াও শরীরের ক্ষারত্ব কমানো, সুস্থ লিভার, হৃদরোগ, হজমশক্তি ও স্তন ক্যান্সারের বিরুদ্ধে শক্তভাবে লড়াই করে। আর প্রতিদিন সকালে এক গ্লাস অ্যালোভেরার জুস একটি সাধারণ দিনকে অসাধারণভাবে উপস্থাপন করতে সাহায্য করে।

প্রতিদিনের জীবনে অ্যালোভেরা ব্যবহার করতে পারেন বিভিন্নভাবে। প্রতিদিন সকাল ও সন্ধ্যাবেলায় আধ কাপ অ্যালোভেরার রসের মধ্যে একটুখানি লবণ মিশিয়ে পান করলে পরিপাক প্রক্রিয়া সহজ হবে। ফলে দেহের পরিপাকতন্ত্র সতেজ থাকে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়।

চুল মজবুত করতে ব্যবহার করতে পারেন, আবার চুল পড়া রোধেও সাহায্য করে। আপনার চুল যদি হয়ে থাকে শুস্ক তাহলে সে সমস্যা সমাধানে অ্যালোভেরা খুব উপকারী। এটাকে আপনি কন্ডিশনার হিসেবেও ব্যবহার করতে পারবেন।

এক কাপ মেহেদি গুঁড়ার সঙ্গে তিন চামচ অ্যালোভেরা মিশিয়ে শ্যাম্পুর মতো মাথায় লাগাতে হবে। এরপর এক ঘণ্টা পরে ধুয়ে ফেলতে হবে। মাসে কয়েক বার এমনভাবে ব্যবহার করলে চুল মজবুত হবে।

খুশকির জন্য তিন চামচ অ্যালোভেরার সঙ্গে কিছুটা কর্পূর গুঁড়া মিশিয়ে চুলের গোড়ায় লাগাতে হবে। আধ ঘণ্টা পরে হাল্ক্কা গরম পানিতে চুল ধুয়ে ফেলুন। অ্যালোভেরার রস ত্বকের জন্য বেশ উপকারী। ত্বকে লাগালে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে এবং রোদে পোড়া ভাব দূর করে।

অ্যালোভেরা জেল ফেশপ্যাকের মতো ব্যবহার করতে পারেন। এতে শুস্ক ত্বক, ব্রণ, মুখে কালো দাগ এবং অন্যান্য ত্বকের সমস্যার জন্য উপকারী। প্রতিদিন খেতে পারেন অ্যালোভেরার রস। এ রস আপনার শরীরের টক্সিন দূর করবে।

হজম শক্তি বাড়িয়ে তুলবে, যা আপনার শরীরের শক্তি জোগানোসহ ওজনকে ঠিক রাখতে সাহায্য করে। অ্যালোভেরার রস দেহে নতুন কোষ তৈরি করে। হাড় ও মাংসপেশির জোড়া শক্তিশালী করে। প্রতিদিন নিয়ম করে পান করলে কোলেস্টেরল কমে।

দেহ থেকে ক্ষতিকর পদার্থ অপসারণ করতে অ্যালোভেরার রস একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রাকৃতিক উপাদান।

ধন্যবাদ

আপনার বিভিন্ন সমস্যার সমাধান বা অজানা উত্তরের জন্য বিনামূল্যে আমাদের প্রশ্ন করতে পারবেন। প্রশ্ন করতে দয়া করে প্রবেশ, কিংবা নিবন্ধন করুন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

9.6k টি প্রশ্ন

7.5k টি উত্তর

250 টি মন্তব্য

948 জন সদস্য

প্রশ্ন করুন
ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ সুস্বাগতম, এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন, বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।

বিভাগসমূহ

ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, কোনভাবেই ক্যোয়ারী অ্যানসারস দায়বদ্ধ নয়।
...