34 বার প্রদর্শিত
"ফেসবুক" বিভাগে করেছেন
ফেসবুকের স্ট্যাটাস কি আমাদের ব্যক্তিগত জীবনের ক্ষতি করছে না ?

1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন

অনলাইন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের সাথে আমাদের সবারই কম বেশি পরিচিতি রয়েছে। আমাদের জীবনের বড় একটা অংশ জুড়ে রয়েছে এই ফেসবুক। কখন কী কাজ করছি তার আপডেট স্ট্যাটাস আকারে জানানো হয়ে থাকে এই মাধ্যমটিতে। কিন্তু কখনও কি ভেবে দেখেছেন ফেসবুকে দেয়া আবেগপ্রবণ এই স্ট্যাটাসগুলো আপনার জীবনের চরম ক্ষতি করছে?

হ্যাঁ ফেসবুকে দেয়া বিভিন্ন স্ট্যাটাস আমাদের অবশ্যই অনেক ক্ষতি করছে যা আমরা হয়ত বুঝতে পারছি না। ভালোলাগছে তাই মনের আবেগগুলো প্রকাশ করছি এই সামাজিক মাধ্যমটিতে। আসুন জেনে নিই এমনই কিছু ক্ষতিকর দিক সম্পর্কে।

১. পূর্ণাঙ্গ জন্ম তারিখ :

জন্মদিনে আপনার ফেসবুক টাইম লাইনে বন্ধুদের নিকট থেকে পাওয়া শুভেচ্ছা বার্তা আপনাকে আনন্দ দিলেও আপনার ফেসবুক প্রোফাইলে দৃশ্যমান পূর্ণাঙ্গ জন্ম তারিখ তথ্য চোরদের হাতে এমন একটি তথ্য তুলে দেয় যা দ্বারা আপনারই নামে আরও একটি অ্যাকাউন্ট খোলা সম্ভব।

২.বর্তমান অবস্থান :

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে স্ট্যাটাস পোস্ট করার ক্ষেত্রে অনেকেই নিজের অবস্থান সম্পর্কে সচেতন থাকেন না এবং অনেক ক্ষেত্রে বর্তমান অবস্থান প্রকাশ করে থাকেন। এই সামান্য তথ্যটিই আপনার বিপদ ডেকে আনতে পারে। কারণ এটি আপনার বর্তমান অবস্থান সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য আপনার ক্ষতি চায় এমন ব্যক্তির কাছে খুব সহজেই পৌঁছিয়ে দেয়।

৩.আপনার সন্তান কিংবা বন্ধুর সন্তানের নাম সহ ছবি ট্যাগ :

এটি একটি সংবেদনশীল বিষয়। আমরা আমাদের সন্তানদের রক্ষার্থে জীবনও বাজী রাখতে পারি । কিন্তু আমরা অনেকেই কোন প্রকার ভাবান্তর ছাড়াই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমাদের কোমলমতি শিশুদের ছবি নাম সহ ট্যাগ করি। আপনি হয়তো তা ট্যাগ করার ক্ষেএে শুধু মাত্র অনলি ফ্রেন্ড সেটিংসটির উপর নির্ভর করে থাকেন কিন্তু আপনি কোনোভাবেই নিশ্চিত হতে পারেন না যে আপনার সন্তানের নাম সহ ছবিটি পাবলিক হবে না। আপনি হয়ত জানেন না আপনার জানা শোনার জগৎ বা সচেতন জীবন যাপনের অন্তরালে ওঁত পেতে থাকতে পারে আপনার সন্তান ও আপনার পরিবারের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর কোন অপহরণকারী দল। আপনার এই সুন্দর পোস্টটি তাদের জন্য হয়ে উঠতে পারে অন্যতম তথ্য সূত্র। তাই আপনার ও আপনার বন্ধুর সন্তানের নিরাপত্তার স্বার্থে ছবির সাথে সঠিক নাম (প্রয়োজনে সাংকেতিক নাম ব্যবহার করতে পারেন) ব্যবহার এড়িয়ে চলুন ।

৪.বাসস্থানের ঠিকানা :

অনেকেই ফেসবুক প্রোফাইলে নিজের বাসস্থানের ঠিকানা সংযুক্ত করে থাকেন। আপনি নিজেও জানেন না কে কখন আপনার নিজের প্রোফাইলটি দেখছে। তাই অন্তত নিজেকে নিরাপদ রাখতে এই কাজটি থেকে বিরত থাকুন।

৫. ফোন নাম্বার :

অনেকেই বন্ধুদের সাথে যোগাযোগ রক্ষার্থে সঠিক ফোন নাম্বারটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে থাকেন। কিন্তু আপনার দেয়া ঐ ফোন নম্বর ব্যবহার করে যে কেউ অতি সহজে আপনার অবস্থান নির্ণয় করতে পারেন অথবা আপনাকে বিভিন্নভাবে বিরক্ত করতে পারেন যা আপনার জন্য সুখকর না ও হতে পারে ।

৬.রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস :

রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস দিতে আমরা সবাই অনেক বেশি পছন্দ করে থাকি। কিন্তু কখনও কি ভেবে দেখেছেন আপনার রিলেশনশিপ স্ট্যাটাসটি কোনো অনাকাঙ্খিত ব্যক্তির চোখে পড়লে আপনি যেকোনো প্রকার বিব্রতকর অবস্থার সম্মুখীন হতে পারেন । তাই ঝামেলা এড়াতে ইটস কমপ্লিকেটেড সেটিংসটি ব্যবহার করতে পারেন।

৭. জিওট্যাগস করা ছবি :

আপনার অবস্থান নির্ণয়ের জন্য জিওট্যাগস করা ছবির চেয়ে ভাল কোনো রোড ম্যাপ নেই । আপনার তোলা সকল ছবির অবস্থান স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার ফোনে ধারণ করা থাকতে পারে । আপনি এটাকে আপনার জন্য যতটুকু উপযোগী মনে করেন তা নাও হতে পারে।

৮.বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনা :

ধরুন আপনি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটিতে এমন একটি স্ট্যাটাস দিলেন যে, ‘আগামি ৩০ জানুয়ারী আমি বাড়িতে থাকছি না, কোনো এক বিশেষ জায়গায় আমার দাওয়াত আছে।’ আপনি কি মনে করেন না যে এমন একটি স্ট্যাটাসে আপনার বাড়িটির উপর নজর রাখা চোরদের বাড়িতে না থাকার তথ্য দিয়ে সহায়তা করছেন? তাই আপনার বাড়ির নিরাপত্তার খাতিরে ভ্রমন শেষ করে বাড়ি ফিরে না আসা পর্যন্ত এ সংক্রন্ত কোন পোস্ট বা ছবি প্রদান থেকে বিরত থাকুন।

৯.কলিগ ও পরিবার বর্গের নিকট অপ্রীতিকর কিছু শেয়ার :

ফেসবুকের নিশ্চয়ই সব ফ্রেন্ড আপনার কাছের সম্পর্কের না। তাই আপনার কোনো দুর্বলতার কথা লিখে স্ট্যাটাস দিয়ে সব ফ্রেন্ডকে জানানোরও নিশ্চয়ই কোনো প্রয়োজনীয়তা নেই। আপনি কি পোস্ট করছেন ,কেন করছেন এবং সেটি কার কার দৃষ্টিগোচর হচ্ছে সে সম্পর্কে সচেতন থাকুন। আপনার যেকোনো প্রকারের অসচেতনতা আপনাকে নিয়ন্ত্রণহীন করে তুলতে পারে এবং আপনার জন্য সমূহ বিপদ ডেকে আনতে পারে ।

১০. বর্তমান পেশা ও পেশা সংক্রান্ত তথ্য :

বর্তমান পেশা ও পেশা সংক্রান্ত তথ্য প্রকাশের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় গোপনীয়তা রক্ষা করা উচিত । আপনার পেশা সংক্রান্ত আগাম পরিকল্পনা বা এ সংক্রান্ত তথ্যাদি প্রকাশ আপনাকে ব্যর্থতা এনে দিতে পারে। তাই এই ধরনের স্ট্যাটাস দেয়া থেকেও অন্তত বিরত থাকুন।

আপনার বিভিন্ন সমস্যার সমাধান বা অজানা উত্তরের জন্য বিনামূল্যে আমাদের প্রশ্ন করতে পারবেন। প্রশ্ন করতে দয়া করে প্রবেশ, কিংবা নিবন্ধন করুন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

8.8k টি প্রশ্ন

6.8k টি উত্তর

244 টি মন্তব্য

769 জন সদস্য

প্রশ্ন করুন
ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ সুস্বাগতম, এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন, বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
ক্যোয়ারী অ্যানসারস এ প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, কোনভাবেই ক্যোয়ারী অ্যানসারস দায়বদ্ধ নয়।
...